লগ-ইন ¦ নিবন্ধিত হোন
 ইউনিজয়   ফনেটিক   English 
নদী দখলকারীরা যত শক্তিশালী হোক, তাদের ১৩ স্থাপনা উচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। সরকার কি আদৌ তা পারবে?
হ্যাঁ না মন্তব্য নেই
------------------------
নিউজটি পড়া হয়েছে ৫৪৪ বার
তোবা ইস্যুতে রাজনীতি হচ্ছে: বাণিজ্যমন্ত্রী
ঢাকা, ১৯ আগষ্টঃ তোবা গার্মেন্ট ইস্যুকে কেন্দ্র করে রাজনীতি হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন বাণিজ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, 'কিছু কিছু রাজনৈতিক দল কোনো কর্মসূচি না পেয়ে এখন এই নিয়ে ব্যস্ত আছে। তোবার কারখানাগুলো আবারও খুলে দেওয়া কিংবা বন্ধ রাখা কর্তৃপক্ষের একান্ত ব্যাপার।'
 
পোশাক খাত নিয়ে ষড়যন্ত্র হচ্ছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, 'মার্কিন জিএসপি পুনর্বহালের মধ্যে আর কোনো রাজনীতি আনা না হলে এই সুবিধা ফিরে পাবে বাংলাদেশ।'
 
অর্থনৈতিক রিপোর্টিং বিষয়ক এক কর্মশালার সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন বাণিজ্যমন্ত্রী।
 
রাজধানীতে বাংলাদেশ প্রেস ইনস্টিটিউট (পিআইবি) মিলনায়তনে সোমবার এই সমাপনী অনুষ্ঠান হয়।
 
পিআইবির মহাপরিচালক মো. শাহ আলমগীরের সভপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থার ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, ইআরএফ সভাপতি সুলতান মাহমুদ ও সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদুর রহমান।
 
অর্থনীতি বিষয়ক সাংবাদিকদের সংগঠন ইআরএফ এবং পিআইবি যৌথভাবে তিন দিনের এ কর্মশালার আয়োজন করে। এতে প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার ৩৫ জন সাংবাদিক অংশ নেন।
 
বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, 'বাংলাদেশের অর্থনীতি এগিয়ে যাচ্ছে। রফতানি আয় বাড়ছে। রাজনৈতিক অস্থিরতা না থাকলে গত অর্থবছরে রফতানি আয়ের লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত হতো। এবছরও ভালো রফতানি আয়ের আশা করা হচ্ছে।'
 
তিনি বলেন, 'আমদানিনির্ভর একটি দেশ পোশাক রফতানিতে বিশ্বের দ্বিতীয় প্রধান। এ কারণেই এই খাত নিয়ে ষড়যন্ত্র হচ্ছে।'
 
কিছু কিছু  শ্রমিক নেতার ভূমিকার প্রতি ইঙ্গিত করে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, 'তোবা ইস্যুতে বিদেশি মিডিয়ার কাছে অভিযোগ এই ষড়যন্ত্রের অংশ। দেশি-বিদেশি এসব ষড়যন্ত্র সম্পর্কে সতর্ক থেকে মালিক-শ্রমিকদের একসঙ্গে কাজ করতে হবে।'
 
যুক্তরাষ্ট্রের জিএসপি প্রসঙ্গে তোফায়েল আহমেদ বলেন, 'বর্তমানে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে পৃথিবীর কোনো দেশের জন্য জিএসপি সুবিধা নেই। পুনরায় জিএসপি সুবিধা চালু হলে বাংলাদেশের না পাওয়ার কোনো কারণ নেই। জিএসপি সুবিধা ফিরিয়ে দিতে যুক্তরাষ্ট্র যেসব শর্ত দিয়েছে, সেগুলোর বেশির ভাগই পূরণ করা হয়েছে। বাকিগুলো পূরণ প্রক্রিয়াধীন।'
ঢাকা বিভাগ এর অন্যান্য খবর
Editor: Syed Rahman, Executive Editor: Jashim Uddin, Publisher: Ashraf Hassan
Mailing address: 2768 Danforth Avenue Toronto ON   M4C 1L7, Canada
Telephone: 647 467 5652  Email: editor@banglareporter.com, syedrahman1971@gmail.com