লগ-ইন ¦ নিবন্ধিত হোন
 ইউনিজয়   ফনেটিক   English 
নদী দখলকারীরা যত শক্তিশালী হোক, তাদের ১৩ স্থাপনা উচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। সরকার কি আদৌ তা পারবে?
হ্যাঁ না মন্তব্য নেই
------------------------
নিউজটি পড়া হয়েছে ১২৬ বার
স্যামসাংয়ের সমকক্ষ হয়ে উঠছে চীনের স্মার্টফোন নির্মাতারা
বাংলারিপোর্টার.কম
সোমবার, ০১ মে ২০১৭

বৈশ্বিক স্মার্টফোন বাজারে দখল বিবেচনায় স্যামসাং ও অ্যাপলের সমকক্ষ হয়ে উঠছে চীনের শীর্ষ তিন স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান। এ তিন প্রতিষ্ঠান হলো— হুয়াওয়ে, অপো ও ভিভো। বাজেটসাশ্রয়ী ও প্রিমিয়াম উভয় ধরনের ডিভাইসের ক্ষেত্রে স্মার্টফোন বাজারে এদের গুরুত্ব বাড়ছে। মার্কিন বাজার গবেষণা প্রতিষ্ঠান ইন্টারন্যাশনাল ডাটা করপোরেশন (আইডিসি) প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এমন তথ্যই উঠে এসেছে। খবর দ্য কোরিয়া হেরাল্ড।


আইডিসির তথ্যমতে, চলতি বছরের জানুয়ারি-মার্চ প্রান্তিকে চীনভিত্তিক এ তিন প্রতিষ্ঠানের ডিভাইস সরবরাহ সমন্বিতভাবে ১ কোটি ৫৫ লাখ ইউনিট বেড়ে ৭ কোটি ৭৯ লাখ ইউনিটে পৌঁছেছে। অথচ একই প্রান্তিকে স্যামসাং ও অ্যাপলের ডিভাইস সরবরাহে কোনো প্রবৃদ্ধি অর্জিত হয়নি। বরং চলতি বছরের প্রথম প্রান্তিকে দুই প্রতিষ্ঠানের বাজার দখল কমেছে যথাক্রমে ১ শতাংশীয় পয়েন্ট ও দশমিক ৫ শতাংশীয় পয়েন্ট। এর ফলে স্মার্টফোন বাজারে স্যামসাং ও অ্যাপলের অংশীদারিত্ব দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ২২ দশমিক ৮ শতাংশ ও ১৪ দশমিক ৯ শতাংশ।


বৈশ্বিক স্মার্টফোন বাজারে আধিপত্য বিস্তার করে আছে দক্ষিণ কোরিয়াভিত্তিক স্যামসাং ও মার্কিন প্রযুক্তি কোম্পানি অ্যাপল। কিন্তু দুই প্রতিষ্ঠানকে টেক্কা দিতে তুলনামূলক বাজেট সাশ্রয়ী ও উন্নত ফিচার-সংবলিত ডিভাইস সরবরাহ করছে চীনের প্রতিষ্ঠানগুলো। হুয়াওয়ে, অপো ও ভিভোর মতো ডিভাইস নির্মাতাদের আগ্রাসী মূল্যনীতিই বাজার দখলে তাদের এগিয়ে নিচ্ছে।


আইডিসির সাম্প্রতিক প্রতিবেদন অনুযায়ী, জানুয়ারি-মার্চ প্রান্তিকের ফলাফল বিবেচনায় বৈশ্বিক স্মার্টফোন বাজারে প্রবৃদ্ধির ক্ষেত্রে স্পষ্ট বিজয়ী হুয়াওয়ে, অপো ও ভিভো। এক বছরের বেশি সময় ধরে স্মার্টফোন বাজার প্রবৃদ্ধিতে এ তিন প্রতিষ্ঠানের গুরুত্ব বাড়ছে। অর্থাত্ বাজার প্রবৃদ্ধির পাশাপাশি এদের নিজেদের বাজার দখল বাড়ছে।


আইডিসির গবেষণা ব্যবস্থাপক অ্যান্থনি স্কার্সেলা বলেন, স্মার্টফোন বাজারে প্রিমিয়াম হ্যান্ডসেটের প্রাচুর্য বাড়ছে। প্রিমিয়াম হ্যান্ডসেট বাজারে গ্যালাক্সি এস৮ বহুপ্রত্যাশিত ফ্ল্যাগশিপ ডিভাইস, যা এরই মধ্যে সরবরাহ শুরু করেছে স্যামসাং। গ্যালাক্সি নোট ৭ নিয়ে বিপত্তির পর এস৮ স্মার্টফোনটির দুই সংস্করণ দিয়ে সুনাম ফেরাতে মরিয়া প্রতিষ্ঠানটি। ডিভাইস বাজারে এর ইতিবাচক প্রভাব পড়বে। দশম বছরপূর্তি উপলক্ষে আইফোনের একটি বিশেষ সংস্করণ আনার পরিকল্পনা রয়েছে অ্যাপলের। ডিভাইসটি এ বছরে শেষ নাগাদ উন্মোচন করা হবে। এটি স্মার্টফোন বাজারের প্রবৃদ্ধি সংকট কাটিয়ে উঠতে ভূমিকা রাখবে। কিন্তু তা সত্ত্বেও বৈশ্বিক স্মার্টফোন বাজারের সিংহভাগ প্রবৃদ্ধি আসবে বাজেট সাশ্রয়ী ডিভাইস থেকে। এক্ষেত্রে এগিয়ে থাকবে চীনের ডিভাইস নির্মাতারা।


হুয়াওয়ে ও অপোর প্রিমিয়াম হ্যান্ডসেটের মূল্য অ্যাপল বা স্যামসাংয়ের ফ্ল্যাগশিপ ডিভাইসের প্রায় অর্ধেক। গত বছর প্রথম প্রিমিয়াম হ্যান্ডসেট পি৯ উন্মোচন করে হুয়াওয়ে। ডিভাইসটির মূল্য ধরা হয়েছিল ৫২০ ডলার। এছাড়া অপোর ফ্ল্যাগশিপ আর৯ স্মার্টফোনের মূল্য ধরা হয়েছে ৪৪০ ডলার। এক্ষেত্রে স্যামসাং ও অ্যাপলের প্রিমিয়াম ফোনগুলোর বিক্রয় মূল্য কমপক্ষে ৮৭৫ ডলার। চীনের প্রতিষ্ঠানগুলোর পাশাপাশি স্মার্টফোন বাজারে শীর্ষ অবস্থানে থাকা স্যামসাংয়ের বিক্রয় প্রবৃদ্ধির বেশির ভাগই আসে বাজেট সাশ্রয়ী হ্যান্ডসেটগুলো থেকে।


আইডিসির তথ্যমতে, স্যামসাংয়ের জনপ্রিয় বাজেট সাশ্রয়ী হ্যান্ডসেট হলো জে ও এ সিরিজের ডিভাইসগুলো। উদীয়মান ও পরিপক্ব দুই ধরনের বাজারেই প্রিমিয়াম স্মার্টফোনের চেয়ে জে ও এ সিরিজের ডিভাইসগুলো বিক্রিতে এগিয়ে রয়েছে।


বিশ্লেষকদের মতে, ২০১৬ সাল ডিভাইস বাজারের জন্য খারাপ গেছে। বছরজুড়ে বাজার প্রবৃদ্ধি কমে প্রথমবার এক অংকে নেমেছে। গত বছর বাজার প্রবৃদ্ধি হয়েছে ২ দশমিক ৫ শতাংশ। কিন্তু চলতি বছর স্মার্টফোন ইন্ডাস্ট্রিতে চমকপ্রদ কিছু ঘটার আশা করা হচ্ছে। প্রথম প্রান্তিকের ফলাফল অন্তত তাই সমর্থন করে। জানুয়ারি-মার্চ প্রান্তিকে স্মার্টফোন ডিভাইস সরবরাহ বেড়েছে ৪ দশমিক ৩ শতাংশ, যা আইডিসির পূর্বাভাসকে অতিক্রম করেছে। চলতি বছর প্রথম প্রান্তিকে ডিভাইস সরবরাহ ৩ দশমিক ৬ শতাংশ বৃদ্ধির পূর্বাভাস দিয়েছিল প্রতিষ্ঠানটি।

প্রযুক্তি এর অন্যান্য খবর
Editor: Syed Rahman, Executive Editor: Jashim Uddin, Publisher: Ashraf Hassan
Mailing address: 2768 Danforth Avenue Toronto ON   M4C 1L7, Canada
Telephone: 647 467 5652  Email: editor@banglareporter.com, syedrahman1971@gmail.com