লগ-ইন ¦ নিবন্ধিত হোন
 ইউনিজয়   ফনেটিক   English 
নদী দখলকারীরা যত শক্তিশালী হোক, তাদের ১৩ স্থাপনা উচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। সরকার কি আদৌ তা পারবে?
হ্যাঁ না মন্তব্য নেই
------------------------
নিউজটি পড়া হয়েছে ২৬ বার
আগাম নির্বাচনের বিষয়ে মোদির বাসভবনে জরুরি বৈঠক
বাংলারিপোর্টার.কম
শুক্রবার, ০৬ অক্টোবর ২০১৭

২০১৯ সালের এপ্রিল-মে মাসের পরিবর্তে ২০১৮ সালের নভেম্বর-ডিসেম্বর মাসেই ভারতের সাধারণ নির্বাচনের পরিকল্পনা করছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এছাড়া আগামী এক–দেড় বছরের মধ্যে যেসব রাজ্যের বিধানসভার মেয়াদ শেষ হবে সেখানকার নির্বাচনও একইসময়ে অনুষ্ঠিত হবে। বৃহস্পতিবার নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে দেশটির অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি ও ক্ষমতাসীন বিজেপির সভাপতি অমিত শাহের হঠাৎ জরুরি বৈঠক ঘিরে আগাম জাতীয় নির্বাচনের এ গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়েছে। খবর  ভারতীয় বাংলা দৈনিক আজকাল।


বুধবার  ভারতের নির্বাচন কমিশন জানায়, ২০১৮ সালের অক্টোবরের পর ভারতজুড়ে একযোগে লোকসভা এবং বিধানসভা নির্বাচনের ব্যবস্থা করতে পারবে কমিশন।


ভারতীয় বাংলা দৈনিক আজকাল জানিয়েছে, মোদির ডাকে কর্ণটকের ম্যাঙ্গালোর থেকে বিমানে করে তড়িঘড়ি করে দিল্লি পৌঁছেন অমিত শাহ। অন্যদিকে অরুণ জেটলি তিনদিনের ঢাকা সফর শেষে দেশে ফিরেই প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন ৭ নম্বর জনকল্যাণ মার্গে ছুটে যান।


সেখানে মোদির নেতৃত্বে তিন শীর্ষ নেতার বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এতে অমিত শাহের কাছে ২০১৮ সালের নভেম্বরে লোকসভা এবং বেশ কিছু রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনের জন্য দলের প্রস্তুতির বিষয়ে জানতে চান মোদি।


এছাড়া অরুণ জেটলির কাছে মোদি প্রশ্ন রাখেন, ভারতের বর্তমান আর্থিক মন্দাকে কতদিনের মধ্যে কাটিয়ে উঠা যাবে।


এর জবাবে অরুণ ও অমিত শাহ উভয়ই মোদিকে আশ্বস্ত করে জানান, সরকার এবং দল যে কোনও পরিস্থিতির জন্য তৈরি।


অমিত শাহ বলেন, উত্তর ভারতের রাজ্যগুলির বিষয়ে চিন্তিত হওয়ার কিছু নেই। উত্তরপ্রদেশ, বিহার, মধ্যপ্রদেশ, রাজস্থান, হিমাচল প্রদেশ, দিল্লি- এস রাজ্যে বিজেপি গত লোকসভা নির্বাচনের মতো ভাল ফল করবে।


তিনি আরো জানান, যখনই নির্বাচন হোক না পশ্চিমবঙ্গ ও দেশের উত্তর–পূর্বাঞ্চলের রাজ্যগুলিতে বিজেপি যথেষ্ট ভাল ফল করবে। গুজরাট, মহারাষ্ট্র বা দক্ষিণের রাজ্যগুলোতেও ইতিবাচক ফল আসবে।


বৈঠকে অরুণ জেটলি দাবি করেন, ভারতের আর্থিক পরিস্থিতি সম্পর্কে যতটা বলা হচ্ছে, বাস্তব পরিস্থিতি ততটা খারাপ নয়।


অর্থনীতি ঘুরে দাঁড়াচ্ছে জানিয়ে চলতি  অর্থবছর শেষ হওয়ার আগেই সমালোচকরা ভুল স্বীকার করে নিতে বাধ্য হবে বলে দাবি করেন তিনি। আরটিভি

বিশ্বসংবাদ এর অন্যান্য খবর
Editor: Syed Rahman, Executive Editor: Jashim Uddin, Publisher: Ashraf Hassan
Mailing address: 2768 Danforth Avenue Toronto ON   M4C 1L7, Canada
Telephone: 647 467 5652  Email: editor@banglareporter.com, syedrahman1971@gmail.com