লগ-ইন ¦ নিবন্ধিত হোন
 ইউনিজয়   ফনেটিক   English 
নদী দখলকারীরা যত শক্তিশালী হোক, তাদের ১৩ স্থাপনা উচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। সরকার কি আদৌ তা পারবে?
হ্যাঁ না মন্তব্য নেই
------------------------
নিউজটি পড়া হয়েছে ৫২৭ বার
ঠাকুরগাঁওয়ে সমস্যার আবর্তে গড়ে উঠছে না শিল্পকারখানা
শিল্পনগরী ঠাকুরগাঁওয়ে দেড়যুগেও কাক্সিক্ষত শিল্পকারখানা গড়ে ওঠেনি। ফলে বিসিক শিল্পনগরী হিসেবে আজো পূর্ণতা লাভ পায়নি।

বিসিক কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, ঠাকুরগাঁও বিসিক শিল্পনগরী জলাবদ্ধতা, জনবল, বিদ্যুৎ ও নিরাপত্তার অভাবসহ নানা সমস্যায় জড়িয়ে রয়েছে। ১৯৮৭-৮৮ অর্থবছরে ঠাকুরগাঁও শহরের পশ্চিমে দুরামারি নামক স্থানে ১৫ একর জমি নিয়ে ঠাকুরগাঁও বিসিক শিল্পনগরী যাত্রা শুরু করে। এতে ৫১টি শিল্প ইউনিটে ১০৪টি প্লট বরাদ্দ দেয়া হয়। ৫১টি শিল্প ইউনিটের মধ্যে ৩৮টি শিল্প ইতোমধ্যে উৎপাদন শুরু করেছে। নির্মাণাধীন রয়েছে ৬টি এবং নির্মাণের অপেক্ষায় রয়েছে বাকি ৭টি ইউনিট।

সূত্র জানায়, বিভিন্ন বেসরকারি ব্যাংক এখানে কোটি কোটি টাকা বিনিয়োগ করলেও সরকারি কোনো বিনিয়োগ নেই। সরকারি বিনিয়োগের ক্ষেত্রে নিয়ম-কানুন ও নানাবিধ শর্ত জুড়ে দেয়ায় কেউ আগ্রহী হচ্ছে না। সহজ শর্তের কারণে তারা অধিক সুদে হলেও বেসরকারি ব্যাংক থেকে অর্থ সহায়তা নিচ্ছেন। শিল্প-কারখানা বিকাশের লক্ষ্যে সরকারি বিনিয়োগের ক্ষেত্রে সহজ শর্তে ঋণ দেয়ার দাবি জানিয়েছেন অনেক ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা। নানা সমস্যায় জর্জরিত এই বিসিক-এ কোনো সীমানা প্রাচীর নেই। যার কারণে নিরাপত্তার যথেষ্ট অভাব রয়েছে। বর্ষার পানি নিষ্কাশনে নেই কোনো প্রধান ড্রেন। এতে বর্ষাকালে সামান্য পানিতেই জলাবদ্ধতা দেখা দেয়। যার কারণে মালামাল আনা-নেয়াসহ চলাচলে মারাত্মক সমস্যায় পড়তে হয়। পানি নিষ্কাশনের ড্রেনেজ ব্যবস্থা গড়ে না ওঠায় জলাবদ্ধতার ঝুঁকিতে রয়েছে শিল্প-কারখানাগুলো। বর্ষায় বিসিক নগরী তলিয়ে যাওয়ার আশংকাও থাকে কখনো কখনো। গ্যাস সংযোগের সুযোগ না থাকা, জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধি, বিদ্যুৎ সংকটে পড়েছে বিসিক শিল্পনগরী। এছাড়াও পানি সরবরাহসহ নানাবিধ সমস্যার কারণে শিল্পনগরী লক্ষ্য অর্জনে ব্যর্থ হচ্ছে।

বিসিকের সহকারী মহা-ব্যবস্থাপক মুশফিকুর রহমান বলেন, শিল্পনগরীর জন্য ৫শ কেভির ট্রান্সফরমার দরকার। বর্তমানে ২৫০ কেভির ট্রান্সফরমার চালু করা হয়েছে। গত ২ বছর ধরে বিসিকে বিদ্যুৎ সংকট ছিল। বর্তমানে আরো ২৫০ কেভির আরেকটি ট্রান্সফরমার প্রয়োজন। তাহলে নির্মাণাধীন শিল্প ইউনিটগুলোতে সংযোগ দেয়া সম্ভব হবে। ঠাকুরগাঁও চেম্বারের সভাপতি ও রাজ্জাক ফুড প্রোডাক্টের মালিক হাবিবুল ইসলাম বাবলু জানান, প্রধান ড্রেন ও সীমানা প্রাচীর নির্মাণসহ অন্য সমস্যাসমূহ খুব তাড়াতাড়ি সমাধান করা দরকার। এর কারণে আমাদের শিল্প মালিকদের আতংকে থাকতে হয়।

বিসিকের উপ-ব্যবস্থাপক আমিনুল ইসলাম জানান, এ এলাকার উন্নয়নে বিসিক গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে চলছে। তাই এখানকার সমস্যাসমূহ সমাধানে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন জানানো হয়েছে। আশা করছি কর্তৃপক্ষ সমস্যা সমাধানে আন্তরিক হবেন।

শিল্পনগরীতে সকল প্লটে কারখানা গড়ে উঠলে প্রচুর লোকের কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে বলে জানা গেছে।
রংপুর বিভাগ এর অন্যান্য খবর
Editor: Syed Rahman, Executive Editor: Jashim Uddin, Publisher: Ashraf Hassan
Mailing address: 2768 Danforth Avenue Toronto ON   M4C 1L7, Canada
Telephone: 647 467 5652  Email: editor@banglareporter.com, syedrahman1971@gmail.com