ইসলামী সামরিক জোটের সঙ্গে বসবেন সৌদি ক্রাউন প্রিন্স সালমান
বাংলারিপোর্টার.কম
বৃহস্পতিবার, ২৩ নভেম্বর, ২০১৭

ইসলামী সামরিক জোটের(আইএমএএফটি) সঙ্গে বৈঠকে বসবেন সৌদি আরবের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী ও ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান।


সৌদি প্রেস অ্যাজেন্সি(এসপিএ) বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। এসপিএ জানায়, জোটভুক্ত দেশের প্রতিরক্ষামন্ত্রীদের প্রথম সভায় সভাপতিত্ব করবেন ক্রাউন প্রিন্স।


এ বৈঠকের দিন ক্ষণ এখনো নির্ধারণ হয়নি। এতে আঞ্চলিক নিরাপত্তা ও শান্তির জন্য সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধে আন্তর্জাতিক উদ্যোগের সঙ্গে সমন্বয়ের সাধারণ কৌশল নির্ধারণ করা হবে।


২০১৪ সালের শেষদিকে সন্ত্রাসবিরোধী এই সামরিক জোট গঠন করা হয়। সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে লড়াই করতে গত বছরের ডিসেম্বরে এই জোট আরো শক্তিশালী করা হয়। জোটের উদ্দেশ্য হলো, সব সশস্ত্র গ্রুপ ও সন্ত্রাসী সংগঠনগুলোর ধ্বংসাত্মক তৎপরতা থেকে দেশকে রক্ষা করা।


চলতি বছরের জানুয়ারিতে পাকিস্তানের সাবেক সেনাপ্রধান জেনারেল(অবসরপ্রাপ্ত) রাহিল শরীফকে জোটের প্রধান হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়।


জেনারেল শরীফ পাকিস্তানী সেনাপ্রধান হিসেবে তার তিন বছরের মেয়াদ শেষ করে ২০১৬ সালের নভেম্বরে অবসর নেন। তার অধীনে সশস্ত্র গ্রুপগুলোর বিরুদ্ধে বড় ধরনের অভিযান পরিচালনা করে দেশটির সামরিক বাহিনী।


আফগানিস্তান, বাহরাইন, বাংলাদেশ, ব্রুনাই, বুরকিনা ফাসো, বেনিন, শাদ, কোমোরোস, আইভরি কোস্ট, জিবুতি, মিসর, গ্যাবন, গিনি, গিনি-বিসাউ, গাম্বিয়া, জর্দান, কুয়েত, লেবানন, লিবিয়া, মালদ্বীপ, মালি, মালয়েশিয়া, মরক্কো, মৌরিতানিয়া, নাইজার, নাইজিরিয়া, ওমান, পাকিস্তান, ফিলিস্তিন, কাতার, সৌদি আরব, সেনেগাল, সুদান, সিয়েরা লিওন, সোমালিয়া, তুরস্ক, টোগো, তিউনিশিয়া, সংযুক্ত আরব আমিরাত(ইউএই), উগান্ডা ও ইয়েমেনকে নিয়ে এই জোট গঠন করা হয়।