শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে ছক্কা মেরে রংপুরের জয়
বাংলারিপোর্টার.কম
শনিবার, ২৫ নভেম্বর ২০১৭

শেষ ওভারে প্রয়োজন ছিল ১৪, শেষ বলে ৩ রান। আগের ম্যাচে শেষ ওভারে প্রয়োজনীয় ১৫ রান নিতে না পারলেও শনিবার চট্টগ্রামে চিটাগং ভাইকিংসের বিপক্ষে ঠিকই সমীকরণ মিলিয়েছে রংপুর রাইডার্স। শেষ ওভারে দুই উইকেট হারিয়ে হারতে বসেছিলেন মাশরাফিরা। কিন্তু তাসকিন আহমেদকে শেষ বলে ছক্কা মেরে রংপুরকে তিন উইকেটের রোমাঞ্চকর জয় এনে দেন থিসারা পেরেরা।

 
১৭৭ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে শেষ বলে দারুণ জয় তুলে নেয় রংপুর। ব্যাটে-বলে দারুণ অলরাউন্ড পারফরম্যান্সে ম্যাচসেরা হয়েছেন মাশরাফি মুর্তজা। আট ম্যাচে চতুর্থ জয়ে আট পয়েন্ট নিয়ে রংপুর উঠে এসেছে পয়েন্ট টেবিলের চার নম্বরে। সমান ম্যাচে পাঁচ পয়েন্ট নিয়ে চিটাগং আছে পয়েন্ট টেবিলের তলানিতেই।
 

বড় লক্ষ্য তাড়া করতে নেমেও রংপুরের শুরুটা হয়েছিল ধীরগতিতে। ২০ বলে ১৫ করা ব্রেন্ডন ম্যাককালামকে আউট করে প্রথম আঘাত হানেন আল-আমিন জুনিয়র। রানের গতি বাড়াতে সবাইকে চমকে দিয়ে ওয়ানডাউনে নামেন মাশরাফি। দ্বিতীয় উইকেটে গেইল ও মাশরাফি ২৬ বলে তুলে ফেলেন ৬০ রান! এর মধ্যে মাশরাফি ১৭ বলে চারটি চার ও তিনটি ছক্কায় ৪২ করে আউট হন। ছয় রানের ব্যবধানে ২৫ বলে ৩৩ রান করে ফেরেন ক্রিস গেইলও।

 
পরের কাজটুকু করেছেন মোহাম্মদ মিঠুন ও পেরেরা। শেষ তিন ওভারে রংপুরের প্রয়োজন ছিল ২৬। কিন্তু ১৮ এবং ১৯তম ওভারে পেরেরা ও মিঠুন নিতে পারেন ৭ ও ৫। তাসকিনের শেষ ওভারে প্রথম দুই বল থেকে এক ছক্কায় থিসারা নেন আট রান। পরের দুই বলে দুটি উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে রংপুর। পঞ্চম বলে ঝুঁকিপূর্ণ দুই রান নিয়ে আবার স্ট্রাইকে থাকেন থিসারা। তাসকিনের ওয়াইড বলে কমে একটি রান। জয়ের জন্য শেষ বলে প্রয়োজন ছিল তিন রান। ডিপ মিডউইকেট দিয়ে দারুণ এক ছক্কায় দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন থিসারা।

 
এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নামা চিটাগং ৩০ রানে দুই উইকেট হারায়। সৌম্য ২৬ বলে ৩০ করে আউট হন। হাফ সেঞ্চুরি (৬৮) করে দলের বড় স্কোরের ভিত গড়ে দেন স্টিয়ান ভ্যান জিল। শেষ দিকে সিকান্দার রাজার ২২ এবং নাজিবুল্লাহ জাদরানের ২৫ রানে ১৭৬ করে চিটাগং। ২৪ রানে এক উইকেট নিয়ে রংপুরের সেরা বোলার মাশরাফিই।
 
 
সংক্ষিপ্ত স্কোর
চিটাগং ভাইকিংস ১৭৬/৭, ২০ ওভারে (সৌম্য সরকার ৩০, ভ্যান জিল ৬৮, সিকান্দার রাজা ২২, নাজিবুল্লাহ জাদরান ২৫। লাসিথ মালিঙ্গা ১/৩৭, মাশরাফি মুর্তজা ১/২৪)।


রংপুর রাইডার্স ১৮০/৭, ২০ ওভারে (ক্রিস গেইল ৩৩, মাশরাফি মুর্তজা ৪২, মোহাম্মদ মিঠুন ৪৪, থিসারা পেরেরা ২৮*। আল আমিন জুনিয়র ১/২৯, সানজামুল ইসলাম ১/২৩)।
ফল : রংপুর রাইডার্স ৩ উইকেটে জয়ী।

 
ম্যান অব দ্য ম্যাচ : মাশরফি মুর্তজা (রংপুর রাইডার্স)।